ইউটিউব অ্যালগরিদম যেভাবে কাজ করে

প্রতিদিন কোটি কোটি ব্যবহারকারী ব্যবহার করে থাকে ইউটিউব। কোটি কোটি ঘন্টা ভিডিও আছে এবং দেখা হয় প্রতিনিয়ত। তবুও এই ওয়েবসাইটটি ভারী হয় না পাশাপাশি যখনই আপনি ভিডিও দেখতে যান লোড নেওয়ার সময় দেরী করে না। আবার আপনি কি ধরনের ভিডিও দেখতে পছন্দ করেন তা স্বংক্রিয়ভাবে দ্রুত সাজেষ্ট করে। এতকিছু অতিদ্রুত করার জন্য ইউটিউব ব্যবহার করে থাকে একধরনের অ্যালগরিদম। আসুন জেনে নেই এই অ্যালগরিদম সম্পর্কে।

ইউটিউব অ্যালগরিদম কিভাবে কাজ করে তা কেউ জানে না। ইউটিউব আমাদের ভিডিও সাজেষ্ট করে থাকে Machine learning প্রযুক্তি ব্যবহারের মাধ্যমে। সুতরাং এখানে কি নিয়মে ভিডিও সাজেষ্ট করা হবে তার কোন নির্ধারিত নিয়ম নেই। আর ইউটিউব এর মালিক গুগল ও এই অ্যালগরিদমের কথা কাউকে বলবে না। কারন গুগল এই অ্যালগরিদমের কথা বললে অনেকে এই অ্যালগরিদম নিয়ে গবেষণা শুরু করে দিবে। আর এতে গুগলের বড়ধরনের সমস্যা হতে পারে।

মেশিন লার্নিং (Machine Learning) কি?

আমরা ইতিমধ্যেই জানতে পেরেছি যে ইউটিউবের অ্যালগরিদম মেশিন লার্নিং পদ্ধতিতে হয়ে থাকে। মেশিন লার্নিংকে আমরা সহজ ভাষায় Al হিসেবে বলে থাকি। মেশিন লার্নিং সিস্টেমকে কোন কিছু বিষয়ে শেখাতে হলে সেই বিষয়গুলোর উপর কিছু ইনপুট প্রদান করতে হয় এবং সেই ইনপুটের উপর ভিত্তি করে প্রদান করতে হয় কিছু সম্ভাব্য আউটপুটও। তাহলে মেশিন লার্নিং সিস্টেমটি পদান করা ইনপুটের উপর গবেষনা করা শুরু করে দিবে।

ইউটিউবে এক ধরনের ফর্মুলা ব্যবহার করা হয়ে থাকে যা হচ্ছে ওয়াচটাইম। যার অর্থ হচ্ছে কত সময় ধরে একজন কোন ভিডিও দেখছে সেটা। এখানে ফর্মুলাটি কাজ করে এভাবে; ধরুন আপনি ইউটিউবে প্রবেশ করলেন এবং একটি ভিডিও দেখছেন। কিন্তু ভিডিওটি আপনার ভাল লাগছে না বলে আপনি ভিডিওটি কেটে অন্য একটি ভিডিও দেখতেছেন কিন্তু সেটাও ভাল লাগছে না তাই আপনি সেটাও কেটে দিলেন। এভাবে করে ৪ টি ভিডিও কেটে দেওয়ার পর আপনার ৫ম ভিডিওটি পছন্দ হলে আপনি সেটা দেখা শুরু করলেন এবং বেশি সময় ধরে দেখলেন। এজন্য ইউটিউব আপনাকে ৫ম ভিডিওটির মত ভিডিও সাজেষ্ট করা শুরু করবে।
তবে শুধু কতক্ষন সময় ধরে আপনি ভিডিও দেখলেন তার উপর এই সিস্টেম কাজ করে না। সেই সাথে কত ভিজিটর দেখলো সেই ভিডিও, কতজন চ্যানেলটি সাবস্ক্রাইব করলো, ভিডিও তে এড থাকলে তার ইম্প্রেশন সহ কত ক্লিক পড়লো এবং লাইক ডিসলাইক কতজন করলো সব কিছু বাছাই করে আপনার জন্য পরবর্তি ভিডিও গুলো পিন আউট করে রেখে দিবে। যাতে আপনি সেই ভিডিও গুলো দেখেন।

ইউটিউব ক্লিক কি?

ইউটিউবে আপনাকে সাজেষ্ট ভিডিও দেওয়া হয় যাতে আপনি সেই ভিডিও গুলোতে ক্লিক করেন। আর এই ক্লিকের উপর ইউটিউব আয় করে থাকে প্রচুর টাকা। আর কোন ইউটিউবার যদি ইউটিউব থেকে টাকা আয় চায় তাহলে তাকে অবশ্যই খেয়াল রাখতে হবে ভিউ ডিউরেশন এবং ক্লিক রেটের উপর। এই ফ্যাক্টর দুটি যত বেশি তত ইউটিউবার এর কাজে আসবে। কারন এই দুটো বেশী থাকলে আপনা থেকেই ইউটিউব আপনার ভিডিও সাজেষ্ট করা শুরু করে দিবে। কোন রকম বুষ্ট করার প্রয়োজন হবে না।

Facebook Comments

পোষ্টটি আপনার কত ভালো লেগেছে?

তারকা চিহ্নে ক্লিক করুন

রেটিং গড়ঃ / 5. ভোট সংখ্যাঃ

As you found this post useful...

Follow us on social media!

We are sorry that this post was not useful for you!

Let us improve this post!

আরও দেখুন