শিখে নিন ফর্সা হওয়ার প্রাকৃতিক কিছু নিয়ম!

পৃথিবীর বিভিন্ন স্থানের মানুষের গায়ের রং ভিন্ন হয়ে থাকে। এবং বিশেষ ক্ষেত্রে দক্ষিন এশিয়ার মানুষের গায়ের রংয়ের ক্ষেত্রে এটি খুবই গুরুত্বপূর্ণ একটি ব্যাপার। এই অঞ্চলে গায়ের রং দিয়ে বিচার করা হয় মানুষও। আবার অনেক মানুষই আছেন যারা তাদের নিজেদের গায়ের রং নিয়ে খুব বেশি চিন্তিত থাকেন। এবং এসব চিন্তা ও হতাসা তাদের মানসিক এবং বিভিন্ন দিক থেকে অনেক দুরে পিছিয়ে রাখে। আমরা সবাই জানি যে, গায়ের রং কি হবে তা নির্ধারন করার ক্ষমতা মানুষের কারো নাই।  এবং তা সৃষ্টিকর্তা জন্মের সময়ই ঠিক করে রাখেন তা এবং সেটি হচ্ছে জিনগত একটি ব্যাপার।

এখন এমন একটি সময় এসে গেছে যেখানে সুন্দর হয়ে উঠা টা গুরুত্বপূর্ণ একটি ব্যাপার হয়ে দাড়িয়েছে। সবাই সুন্দরের পূজারি। তাই সবাই সুন্দরটাই খুঁজে সবসময়। এজন্য সবাই নিজেকে অত্যন্ত সুন্দর হিসেবে পেতে চায়। এবং এতে করে তাদের আত্নবিশ্বাস ও বেড়ে যায় বলে জানিয়েছেন গবেষকরা। তাই আমরা আজকে আলোচনা করবো ঘরোয়া কয়েকটি ফর্সা হবার এবং গায়ের রং উজ্জ্বল করার কিছু উপায় সম্পর্কে। যা আপনি ঘরে বসে করলে আপনার গায়ের রং আগের থেকে অনেকটাই উজ্জ্বল দেখাবে।

লেবুঃ পুড়ে যাওয়া ত্বকের রং ফিরিয়ে আনতে ব্যবহার করা হয় লেবু। লেবুর সাথে মধু মিশিয়ে ত্বকে লাগাবেন। এটি কাজ করে থাকে স্বাভাবিক ব্লিচের। এবং বাড়িয়ে তুলবে ত্বকের জেল্লা।

গোলাপ জলঃ গোসল করার সময় গোলাপ জল মিশিয়ে গোসল করুন। এবং খানিকটা লেবুর রসও মিশিয়ে নিবেন। লেবু কাজ করবে ব্লিচের এবং গোলাপ জল ফিরিয়ে আনবে আপনার ত্বকের জেল্লা।

ডিমের কুসুমঃ আপনি কি জানেন? ডিমের সাদা অংশের ন্যায় ডিমের কুসুমও ত্বকের জন্য অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। এজন্য কুুসুম ফাটিয়ে ত্বকে লাগাতে হবে। তা সেটা তোলার সময় ব্যবহার করতে হবে ভিনেগার। যার ফলে গন্ধ চলে যাবে এবং উজ্জ্বলতা বাড়াবে আপনার ত্বকের।

দুধঃ দুধ গোসল করে তুলে ত্বককে অত্যন্ত ফর্সা। এবং প্রক্রিয়াটি করে সবচেয়ে দ্রুত। এটি দিয়ে গোসলের অন্যতম একটি প্রধান ভালো দিক হচ্ছে দুধ দিয়ে গোসল করলে আলাদা করে সাবান বা শ্যাম্পুর প্রয়োজন হয় না। এবং ত্বক হয়ে যায় ফর্সা।

দইঃ ত্বকের রং ফেরাতে লেবু এবং টক দই এর মিশ্রন তৈরী করে ত্বকে লাগান। তবে মনে রাখবেন এতে খানিক জ্বালা অনুভব হতে পারে। তবে জ্বালা অনুভব হলেও এই প্রক্রিয়াটি ফর্সা হতে দারুনভাবে কাজে দেয়।

জিরাঃ গোসলের পানিতে জিরা ভিজিয়ে রেখে গোসল করুন। এটি ব্যবহারের ফলে মাত্র ১০ দিনেই কাজে দিবে ত্বকের জেল্লা ফিরাতে। অথবা জিরা বেটে তাতে দুধের মিশ্রন তৈরী করেও ত্বকে লাগাতে পারেন। ত্বকের রং সাদা করতে দারুন কাজে দেয় এটি।

ডাবের পানিঃ ডাবের পানি বা নারকেলের পানি ত্বকের জন্য অত্যন্ত উপকারী ভূমিকা পালন করে। ত্বকের উজ্জ্বলতা ফিরাতে, কালো ছোপ দুর করতে, ফুসকুরির দাগ মুছতে এর জুরি মেলা ভার।

আশা করি প্রক্রিয়া গুলো আপনার কাজে আসবে অনেক। তবে একটা কথা মনে রাখবেন ত্বকের রং সৃষ্টিকর্তার দেওয়া। কখনো ত্বকের রং এর জন্য নিজেকে ছোট করে দেখবেন না বা হিনমন্যতা করে ভাববেন না।

Facebook Comments
" data-link="https://twitter.com/intent/tweet?text=%E0%A6%B6%E0%A6%BF%E0%A6%96%E0%A7%87+%E0%A6%A8%E0%A6%BF%E0%A6%A8+%E0%A6%AB%E0%A6%B0%E0%A7%8D%E0%A6%B8%E0%A6%BE+%E0%A6%B9%E0%A6%93%E0%A7%9F%E0%A6%BE%E0%A6%B0+%E0%A6%AA%E0%A7%8D%E0%A6%B0%E0%A6%BE%E0%A6%95%E0%A7%83%E0%A6%A4%E0%A6%BF%E0%A6%95+%E0%A6%95%E0%A6%BF%E0%A6%9B%E0%A7%81+%E0%A6%A8%E0%A6%BF%E0%A7%9F%E0%A6%AE%21&url=https%3A%2F%2Fshikhunbd.com%2FPost%2F1781&via=">">Tweet
68 Shares

আরও দেখুন